আজ

  • মঙ্গলবার
  • ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

জনাব এস.এম জাহাঙ্গীর আলম সরকার গল্প!

আপডেট : সেপ্টেম্বর, ৪, ২০১৮, ৩:১৫ পূর্বাহ্ণ


S-U-M
বেলায়েত হোসেন। স্থানীয়ভাবে যুবলীগ কর্মী হিসেবে পরিচিত। ২০১৪ সালের নির্বাচনের সময় প্রতিপক্ষের হামলায় পঙ্গুত্ববরণ করেন। পরে তাকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হলেও অর্থাভাবে চিকিৎসা তার ভাগ্যে জুটেনি। তার জীবন সংগ্রামের বর্ণনা শুনে চিকিৎসার জন্য ৫০ হাজার টাকা অনুদান দেন ফেনীর পুলিশ সুপার এসএম জাহাঙ্গীর আলম সরকার। পেশায় পুলিশ হলেও মানুষের বিপদ-আপদে পাশে দাঁড়ান মহানুভব এই পুলিশ সুপার।
শুধু এটিই নয়, এরকম অসংখ্য অসহায় মানুষের সহযোগিতায় হাত বাড়িয়ে বেশ সুনাম কুড়িয়েছেন জেলা পুলিশের শীর্ষ এই কর্তাব্যক্তি।
জানা গেছে, সোনাগাজীর সঙ্গীত শিল্পী পূর্নিমা অর্থ সংকটে সঙ্গীত চর্চা ব্যাহত হয়। সম্প্রতি এ খবর পেয়ে তার গ্রামের বাড়িতে ছুটে যান জাহাঙ্গীর সরকার। সঙ্গীত চর্চার জন্য একটি হারমোনিয়াম, পরিবারের স্বচ্ছলতার জন্য তার বাবাকে একটি ভ্যান গাড়ী ও নগদ ১০ হাজার টাকা প্রদান করেন।
সোনাগাজীর জন্মান্ধ নজরুল ইসলামকে চিকিৎসার জন্য ২০ হাজার টাকা প্রদান করেন পুলিশ সুপার। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন।
এছাড়া ট্রাক-কভার্ড শ্রমিক ইউনিয়নের জন্য ৫০ হাজার টাকা অনুদান প্রদান করেন পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর সরকার। গত রমজানে ফতেহপুর নির্মাণাধীন রেলওয়ে ওভারপাসের কারনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে দূর্বিষহ যানজটে পড়া যাত্রী-চালক-হেলপারদের শুকনা খাবার ও সুপেয় পানি সরবরাহ করা হয়। কিছুদিন পর লালপোলে স্টার লাইন ফিলিং স্টেশনে গাড়ী চালক, হেলপার ও যাত্রীদেরকে ইফতার করানো হয়। ঈদে পথশিশু ও তাদের মা-বাবাদের ঈদবস্ত্র বিতরণ, পথশিশুদের খেলার সামগ্রী বিতরণ ও আড্ডা এবং শীতে অসহায়-মানুষদের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়।
বখাটেদের উৎপাত বন্ধ ও তাদের চিহ্নিত করতে ব্যক্তিগত অর্থায়নে ফেনী জিএ একাডেমীতে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করেন তিনি। সোনাগাজীতে প্রতিবন্ধী শিক্ষককে হুইল চেয়ারও দেন তিনি। একই এলাকার আরেক প্রতিবন্ধী শিশুকে হুইল চেয়ার প্রদান করেন।
২০১৭ সালের ৫ মার্চ ফেনীতে যোগদানের পর পেশাগত কাজের পাশাপাশি সঙ্গীতেও বেশ সাড়া জাগান। ২০১৭ সালে রোহিঙ্গাদের নিয়ে তার কণ্ঠের একটি মানবতার গান দর্শকদের হৃদয়ে নাড়া দেয়। এ গানটির জন্য তিনি এ্যাওয়ার্ডও পেয়েছেন। এছাড়া তার রচিত ও কন্ঠে ৫০ থেকে ৬০টির অধিক গান পরিবেশিত হয়েছে। তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বাংলাদেশ বেতারের তালিকাভুক্ত কন্ঠশিল্পী ও গীতিকার।