আজ

  • বুধবার
  • ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ইয়াবা বিক্রির ভিডিও ধারণ করায় নোয়াখালীতে গরম তৈলে জ্বলসে কিশোরকে শাস্তি!

আপডেট : সেপ্টেম্বর, ১১, ২০১৮, ১১:৩৭ পূর্বাহ্ণ


স্টাফ রিপোর্টার>>> ওমর আলম
নোয়াখালীর সুধারামে ইয়াবা বিক্রয়ের ভিডিও ধারণ করায় তারেক আজিজ (১৭) নামের এক কিশোরকে গরম তৈলের কড়াইয়ের ভিতর চেপে ধরে তার শরীর জ্বলসে দিয়েছে মাদক ব্যবসায়ীরা। গতকাল বিকালে সদর উপজেলার পূর্ব এওজবালিয়ার বেদে পল্লীতে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘদিন থেকে উপজেলার এজবালিয়া ইউনিয়নের পূর্ব এওজবালিয়া গ্রামে (৬নং ওয়ার্ড অংশে) প্রকাশ্যে মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে মাদক ব্যবসায়ীরা। শনিবার বিকালে স্থানীয় বেদে পল্লীর মিটন (৩৪), টুকু (৩৫) ও মোস্তাক (৪০) বাহির এলাকা থেকে আগত মাদকসেবীদের কাছে মাদক বিক্রি করার সময় স্থানীয় দেলোয়ার হোসেন বাহারের ছেলে তারেক আজিজ পাশ থেকে মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করে নেই।

মাদক ব্যবসায়ীরা বিষয়টি টের পেয়ে তাদের সহযোগী লিটন (২৬), আমান (৪৫), মিঠু (৩২), ফিন্সিল (২৮), নজরুল (২৯), জাকির (৪৬) কে ডেকে নিয়ে তারেক আজিজকে মারধর করে মোবাইল ফোনটি ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এতে তারেক বাঁধা দিতে গেলে মাদক ব্যবসায়ীরা তার মাথায় কুপিয়ে পাশের চা দোকানের পেয়াজু ভাজার গরম তৈলের কড়াইয়ে চেপে ধরে শরীরের অধিকাংশ স্থান জ্বলসে দিয়ে মোবাইল ফোনটি ছিনিয়ে নেয়। এসময় তারেকের চিৎকারে তার ছোটভাই আরিফ (১৩) ও আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে মাদক ব্যবসায়ীরা আরিফকেও পিটিয়ে আহত করে চলে যায়।

পরে স্থানীয়রা গুরত্বর আহত অবস্থায় তারেক আজিজকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। আহত তারেকের পিতা দোলোয়ার হোসেন বাহার এবং স্থানীয় লোকজন বলেন, দীর্ঘদিন যাবৎ বেদেরা এখানে বাড়ি-ঘর তৈরী করে মাদক ব্যবসা সহ নানা রকম অশ্লিল কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের ওইসব অপকর্মের প্রতিবাদ করলেই তারা সবাই একসাথ হয়ে হামলা করে।

সুধারাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন বলেন, গরম তৈলে আক্রান্ত কিশোরের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।