আজ

  • শুক্রবার
  • ২রা অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কলেজে স্ত্রীকে দেখতে বোরকা পরে এলেন স্বামী, অতঃপর আটক

আপডেট : জানুয়ারি, ২৩, ২০১৯, ৪:০০ অপরাহ্ণ


স্টাফ রিপোর্টার>>>
বোরকা পরে কলেজে এলেন এক পুরুষ। তবে নিজেকে এভাবে আড়াল করেও পার পেলেননা তিনি। ধরা পড়লেন কলেজের শিক্ষার্থী ও গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) হাতে।

সোমবার দুপুরে ময়মনসিংহের আনন্দমোহন কলেজে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ওই এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও ঘটনাটি নিয়ে রসিকতায় মেতেছেন অনেকে।  

জানা গেছে, আটককৃত ওই ব্যক্তির স্ত্রী ময়মনসিংহের আনন্দমোহন কলেজে পড়াশুনা করছেন। আর স্ত্রী কলেজে কী করেন সেটা জানতেই তিনি এমন ছদ্মবেশে ওই কলেজে এসেছিলেন।

তাই বলে বোরকা পরে! পুলিশি জিজ্ঞাসায় তিনি বলেন, বেশ কিছুদিন ধরে স্ত্রীর ওপর সন্দেহ হয় তার। তাই কলেজে স্ত্রীর ওপর নজর রাখতেই বোরকা পরে নারীবেশে কলেজে আসেন তিনি।
ময়মনসিংহ ডিবি কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃত ব্যক্তি এসব তথ্য দেন বলে জানিয়েছেন ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ওসি শাহ কামাল।

ওসি শাহ কামাল আরও জানিয়েছেন, ওই ব্যক্তির নাম মাহমুদুল হাসান এবং তিনি শেরপুর সদর উপজেলার হাওড়া গ্রামের মোফাজ্জল হোসেনের ছেলে। বর্তমানে তিনি জামালপুর আইবিএ কলেজে অফিস করণিক হিসেবে কর্মরত।

ঘটনার বিবৃতি দিয়ে সাংবাদিকদের ওসি শাহ কামাল হোসেন বলেন, হাসানের স্ত্রী আনন্দমোহন কলেজের ইসলামিক স্ট্যাডিজ বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্রী।

সোমবার ওই বিভাগের মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে ট্রেনযোগে জামালপুর থেকে ময়মনসিংহ শহরে স্ত্রীকে নিয়ে আসেন তিনি।

স্ত্রীকে ময়মনসিংহের আনন্দমোহন সরকারি কলেজের গেটে নামিয়ে দেন হাসান। এরপরই স্ত্রী পরীক্ষা দিচ্ছেন নাকি অন্য কিছু করছেন সে সন্দেহে শহরের একটি দোকান থেকে বোরকা কিনে ছদ্মবেশে কলেজে যান হাসান।
আর এই বোরকা পরতে কলেজের পুরুষ শৌচাগার ব্যবহার করেন তিনি। এসময় পুরুষের শৌচাগার থেকে বোরকা পরিহিত নারী বের হতে দেখে সন্দেহ হয় কয়েকজন কলেজ ছাত্রের।

তারা হাতেনাতে হাসানকে আটক করে কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে নিয়ে যায়। কলেজ কর্তৃপক্ষ জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)কে বিষয়টি জানালে ঘটনাস্থলে এসে ছদ্মবেশী হাসানকে আটক করে পুলিশ।
জানা গেছে, সাত বছর প্রেমের পর আনন্দ মোহন কলেজের ওই ছাত্রীকে বিয়ে করেন হাসান। সুখের সংসার চলছিল তাদের।

হঠাৎ একটি মোবাইল ফোনে স্ত্রীকে কথা বলতে দেখে সন্দেহ হতে থাকে হাসানের। স্ত্রী কলেজে কার সঙ্গে মিশে বা কথা বলে তার ওপর নজর রাখতেই হাসান বোরকা পরে কলেজে আসেন।