আজ

  • বৃহস্পতিবার
  • ১লা অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ফেনীতে বন্যায় স্থায়ী সমাধানে ৮১৪ কোটি টাকার প্রকল্প

আপডেট : আগস্ট, ৪, ২০১৯, ১:২০ অপরাহ্ণ


স্টাফ রিপোর্টার>>>
পরশুরাম ও ফুলগাজী উপজেলার বন্যা কবলিত ১৫টি বাঁধের স্থায়ী সমাধান সহ জেলায় ৮শ ১৪ কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার। এর মধ্যে কিছু প্রকল্পের কাজ শেষ পর্যায়ে, আর কিছু কাজ শুরুর অপেক্ষায়। এসব কাজ সম্পন্ন হলে এ দুই উপজেলার বাসিন্দাদের দীর্ঘদিনের দু:খ লাঘব হবে। শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ত্রাণ বিতরন করতে এসে এ কথা জানিয়েছেন দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানি সম্পদ উপ-মন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম এমপি।
পানি সম্পদ উপ-মন্ত্রী বলেন, ‘সমগ্র ফেনী জেলাকে স্থায়ীভাবে বন্যা থেকে রক্ষার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় ও পানি উন্নয়ন বোর্ড পরিকল্পনা নিয়েছি। মুহুরী-কহুয়া-সিলোনীয়া নদীর পুন:খনন এবং বাঁধ নির্মাণের জন্য ৬শ কোটি টাকার প্রস্তাবনা প্রণয়ন করেছি। এ বছরের মধ্যে সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে কাজ শুরু করতে পারবো। মুহুরী সেচ প্রকল্প পুনর্বাসনের জন্য ১৫০ কোটি টাকার কাজ চলমান রয়েছে। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ ১৫টি স্থানে ৪ কোটি ১৪ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ কাজ চলছে। আগামী ৫-১০ দিনের মধ্যে কাজ শেষ হবে। ফেনী সদর উপজেলার জগতজীবন ও ছাগলনাইয়া উপজেলার নাঙ্গলমোড়ায় ৫৬ কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নিয়েছি। সেই প্রকল্পের সকল প্রক্রিয়া এই বছরের মধ্যে শেষ করে কাজ শুরু করবো।’
ডেঞ্জার প্ল্যান সম্পর্কে শামীম বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বপ্ন দেখেন, স্বপ্ন দেখান এবং সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করেন। সারা বাংলাদেশে যুগোপযোগি ডেঞ্জার প্ল্যান প্রকল্প হাতে নিয়েছেন। এর আওতায় ফেনী জেলায় ৭টি খাল খনন করেছি। ৮ কোটি টাকার কাজ করেছি। ফেনীর প্রত্যেকটি উপজেলায় ৫টি করে খাল খননের প্রকল্প হাতে রয়েছে। সর্বোপরি ৮শ ১৪ কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে পারলে কোন বন্যাতে ফেনী জেলায় আর পানি আসবেনা। আমরাও স্থায়ী সমাধান চাই। পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় এবং পানি উন্নয়ন বোর্ড থেকে এমনভাবে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণ করতে চাই। উচ্চতা ও প্রশস্ত করতে চাই, যেন কোন বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ হতে না হয়। মানুষ শুধু মনে করতে চায়না, বিশ্বাস করতে শুরু করেছে। বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ, শেখ হাসিনার হাতেই নিরাপদ। আর কারো হাতে দেশ নিরাপদ নয়।’