আজ

  • সোমবার
  • ১০ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ২৭শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ফেনী পোস্ট অফিসে টাকা ছাড়া মেলে না সেবা

আপডেট : জানুয়ারি, ২৫, ২০২০, ৫:২৮ অপরাহ্ণ


স্টাফ রিপোর্টার>>>

ফেনী পোস্ট অফিসে টাকা ছাড়া সেবা মেলে না। সেখানে অনিয়মই নিয়মে পরিণত হয়েছে। সেবা নিতে আসা গ্রাহকরা প্রতিদিনই হয়রানির শিকার হচ্ছে। ফেনী শহরের কলেজ রোডস্থ ফেনী হেড পোস্ট অফিস অবস্থিত। পোস্ট অফিসে চিঠি আদান-প্রদান এখন আর আগের মতো নেই বললেই চলে। শুধু সরকারি ডাক আদান-প্রদান করে পোস্ট অফিসের কর্মচারীরা। মানুষ এখন বিভিন্ন কুরিয়ার সার্ভিসের ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে। এতে পোস্ট অফিসে কর্মচাঞ্চল্য আগের মতো নেই। সরকারি বেসরকারি ব্যাংকগুলো আমানতের ওপর লভ্যাংশ কমিয়ে দেয়ায় সাধারণ আমানতকারীরা ও নারীরা এখন সঞ্চয়পত্র নির্ভর হয়ে পড়েছে। কিন্তু এ পোস্ট অফিসে সঞ্চয়পত্রের সুদের টাকা উত্তোলন করতে গেলে গ্রাহকদের প্রতিটি টেবিলে টাকা দিতে হয়।

বুধবার ও বৃহস্পতিবার সরেজমিন গিয়ে বিভিন্ন গ্রাহকের অভিযোগ শুনতে গিয়ে একাধিক নারী-পুরুষ গ্রাহক অভিযোগ করে জানান,প্রথম থেকে শুরু করে প্রত্যেক টেবিলেই টাকা দিতে হয়। গ্রাহকের লাভের টাকা উত্তোলন করতে গিয়ে এমন পরিস্থির শিকার হন প্রত্যেকে। মোটবী ইউনিয়নের মোঃ সেলিম ও আর্জিনা আক্তার ২০ লাখ টাকা সঞ্চয়পত্রে সুদের টাকা উত্তোলন করতে গিয়ে এমনি হয়রানির শিকার হন। তারা জানান, কর্মকর্তাদের টাকা না দেয়ায় সুদের টাকা উত্তোলন করতে পারেননি। একইভাবে শহরের কদলগাজী রোডস্থ রহিমা আক্তার ৬ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্র ও সহদেবপুরের কল্পনা রানী ও একাডেমি এলাকার প্রবাস ফেরত নুর আলম জানান, সঞ্চয়পত্রের টাকা উত্তোলন করতে গিয়ে পোস্ট অফিস কর্মকর্তা ও ক্যাশ বিভাগে দায়িত্বে থাকা কর্মচারীরা লাভের টাকার মধ্যে শত টাকার নোটের পর যে পরিমাণ খুচরা টাকা হোক না কেন তা তারা রেখে দেন।

অন্যদিকে সঞ্চয় টাকার উপর লাভের অংশ উত্তোলন করতে গিয়ে মাস্টারসহ সবার হাতেই প্রথমে ঘুষের টাকা বুঝিয়ে দিয়ে টাকা হিসাব নিতে হয়।এসজি অপারেটর গিয়াস উদ্দিনকে টাকা না দিলে সঞ্চয়পত্রের সুদের টাকার হিসাব মেলে না। হিসাব না পেলে টাকা উত্তোলন করা অসম্ভব হয়ে পড়ে বলে তারা জানান। অভিযুক্ত গিয়াস উদ্দিন জানান, আমরা কাজ করে দিচ্ছি আমানতকারী লাভবান হচ্ছে, তাই নাস্তার টাকা নিচ্ছি। ফেনী হেড পোস্ট অফিসের পোস্ট মাস্টার শাহজাহান বলেন,অন-অভিজ্ঞ লোক দিয়ে কাজ করতে হচ্ছে, তাই অনেক অভিযোগ শুনলেও মেনে নিতে হচ্ছে। সূত্রেঃ যুগান্তর ১৭ জানুয়ারি।