আজ

  • বৃহস্পতিবার
  • ৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ফেনীতে পুরাতন কারাগার হচ্ছে প্রাতিষ্ঠানিক ‘হোম কোয়ারেন্টিন’

আপডেট : মার্চ, ২৪, ২০২০, ৩:৩৪ অপরাহ্ণ


স্টাফ রিপোর্টার :সালাহ উদ্দিন

ফেনীতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা মতে প্রস্তুত করা হচ্ছে প্রাতিষ্ঠানিক হোম কোয়ারেন্টিন। জেলা সদর সহ সবকটি উপজেলায় স্থানীয় প্রশাসন এটি তৈরি করছে। রবিবার স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়েছে।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোছা: সুমনী আক্তার ফেনীর সময় কে জানান, প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের জন্য ফেনীতে স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। ইতিমধ্যে পুরাতন জেলা কারাগারকে সম্ভাব্য স্থান নির্ধারণ করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। আজ-কালের মধ্যে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা আসবে।
জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, অপরাপর উপজেলা সমূহেও প্রাতিষ্ঠানিক হোম কোয়ারেন্টিন করছে সরকার। সদর উপজেলায় মাহবুবুল হক পেয়ারা সুইমিং পুল, ফুলগাজী যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, দাগনভূঞা উপজেলায় জেলা পরিষদের ডাক বাংলো প্রাতিষ্ঠানিক হোম কোয়ারেন্টিন হিসেবে ঘোষণা দেয়া হয়েছে।
সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরীন সুলতানা ফেনীর সময় কে জানান, প্রাতিষ্ঠানিক হোম কোয়ারেন্টিন মাহবুবুল হক পেয়ারা সুইমিং পুলে প্রাথমিক পর্যায়ে ১০ শয্যা তৈরি করা হচ্ছে। প্রয়োজন অনুসারে পর্যায়ক্রমে পুরো সুইমিংপুলকে কোয়ারেন্টিনের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন।
অপরদিকে ছাগলনাইয়া উপজেলার পূর্ব হরিপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির উদ্যোগে ১০ বেডের কোয়ারেন্টাইন সেন্টার চালু করা হয়েছে। করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের স্বাস্থ্য সেবা দেয়ার লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার এই কোয়ারেন্টাইন সেন্টারটি খোলা হয়। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় কোয়ারেন্টাইন সেন্টার খোলার কথা নিশ্চিত করেছেন ছাগলনাইয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো: শিহাব উদ্দিন। তিনি জানান, প্রাথমিকভাবে ১০ বেডের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রয়োজন দেখা দিলে দ্রুত বেড সংখ্যা বাড়ানো যাবে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া তাহের ফেনীর সময় কে বলেন, করোনা ভাইরাস আক্রান্ত দেশ থেকে ফেরা প্রবাসীরা যদি এখানে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে চান তাহলে তাদেরকে এখানে রাখা হবে।
স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র জানায়, জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীদের জন্য ১শ ৫শয্যার আইসোলেশন প্রস্তুত করা হয়েছে। এর মধ্যে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ৩৫ শয্যা ও মহিপাল ট্রমা সেন্টারে ৩০ শয্যা, সোনাগাজীর মঙ্গলকান্দি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২০ শয্যা, জেলার অপর ৫ উপজেলা সোনাগাজী, ফুলগাজী, পরশুরাম, ছাগলনাইয়া ও দাগনভূঞা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩ শয্যা রাখা হয়েছে।