আজ

  • বৃহস্পতিবার
  • ১লা অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ফেনী পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফয়সালের বিরুদ্ধে সার্ভেয়ারকে নির্যাতন ও চাঁদাবাজির অভিযোগ ফেনী মডেল থানায়

আপডেট : মে, ১২, ২০২০, ১:৪৬ পূর্বাহ্ণ

স্টাফ রিপোর্টার>>> মোবারক হোসেন

ফেনী পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আতিক উল্যাহ ফয়সলের বিরুদ্ধে চাঁদাদাবী ও নির্যাতনের অভিযোগে ফেনী মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ করেছে সিরাজ উল্যাহ মিজি প্রকাশ শিমুল আমিন নামে এক সার্ভয়ার। সোমবার সোমবার দুপুরে শিমুল আমিন বাদী হয়ে আতিক উল্যাহ ফয়সাল,বশর,আবুল হোসেন,আলমগীর হোসেন,রুবেল,আবু বক্কর, ফারুক,
ফকির ও শাহ আলমসহ আরো অজ্ঞাতনামা ১০/১২ জনের নামে অভিযোগটি দায়ের করেন।

ফেনী মডেল থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ ও নির্যাতিত সুত্রে জানা যায়, এপিল মাসের ২ তারিখে শিমুল আমিনের কাছে ৭০ হাজার টাকা ত্রানের জন্য দাবি করে কাউন্সিলর ফয়সাল। পরে লোক মারফত শিশুলকে ৫০ হাজার টাকা দিতে নিয়মিত চাপ দেয় কাউন্সিলর। শিমুল ফয়সলকে দাবীকৃত টাকা না দেয়ায় ৮ মে তারাবির নামাজের পর তার কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে যায়। সেখান থেকে রাত ১টার সময় তাকে সুলতানপুরের বিপটিকা এলাকার আমিন কোম্পানীর পারিবারিক কবরস্থানে নিয়ে নির্মম নির্যাতন চালায়।

নির্যাতনের এক পর্যায়ে শিমুল জ্ঞান হারায়। জ্ঞান পিরে এলে শিমুলকে ফয়সাল পুনরায় তার অফিসে এনে ১শ টাকার তিনটি সাদা ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেয়। এর পর ফয়সলের লোকজন তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় বাডিতে দিয়ে আসে। গত ২ দিন যাবৎ তারা শিমুলকে পাহারায় রাখে যাতে বাড়ি থেকে বের হতে না পারে। রবিবার শিমুল তাদের চোখ ফাঁকি দিয়ে ঘর থেকে বেরিয়ে আসে। বর্তমানে শিমুল তার পরিবার নিয়ে চরম নিরাপত্বাহীনতায় ভুগছে। এ বিষয়ে শিমুল নিজম উদ্দিন হাজরী এমপি, জেলা প্রশাসক,পুলিশ সুপার ও ফেনী মডেল থানার ওসির সহায়তা কামনা করছে। এ বিষয়ে কথা বলার জন্য আতিক উল্লা ফয়সালের মুঠোফোনে চেষ্টা করলেও তিনি ফোন কল ধরেনি।