আজ

  • রবিবার
  • ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শোক দিবস পালনকে কেন্দ্র করে ফেনীতে উত্তেজনা,জয়নাল হাজারীর বাডিতে হামলা ও ভাংচুর।

আপডেট : আগস্ট, ১৫, ২০২০, ৯:৫৮ পূর্বাহ্ণ

স্টাফ রিপোর্টার>>>আনোয়ার হোসেন,ফেনী

১৫ আগষ্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উদযাপন কে কেন্দ্র করে ফেনীতে চরম উত্তেজন দেখা দিয়েছে। পুরো শহরজুডে এক ভীতিকর পরিস্থিতি দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে বাংলাদেশ আওয়ামিলীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা ও সাবেক সংসদ সদস্য জয়নাল হাজারী দীর্ঘদিন পর ফেনীর মুজিব উদ্যানে শোক দিবস উদযাপন করতে তার নিজস্ব বাসভবন শৈলকূটিরে অবস্থান করছেন। এ নিয়ে নিজ দলের নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। যার ফলে যে কোন সময় বড ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন ফেনীবাসী। ইতিমধ্যে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক ৩ ঘটিকার সময় কিছু সশস্ত্র দুর্বৃত্ত জয়নাল হাজারীর ফেনীস্থ বাসভবনে প্রবেশ করে আসবাবপত্র ভাংচুর, জাতির জনকের ছবি সংবলিত ফেষ্টুন ছিডে ফেলে এবং ৪-৫ রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে আতঙ্ক তৈরি করে বলে দাবি করেন বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদ। এ নিয়ে তিনি স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন কে অবহিত করলে অত্র এলাকায় বাডতি নিরাপত্তার জোরদার করা হয়। শুক্রবার ভোরে তিনি ঢাকা থেকে ফেনীতে পৌঁছেন।

এছাডা তিনি বিকালে নিজ বাসভবনে এক সংবাদ সন্মেলনের আয়োজন করে বলেন, ১৫ আগষ্টের ন্যয় ফেনীতেও যে কোন সময় বড ধরনের অঘটন ঘটতে পারে বলে তিনি আশঙ্কা করেন। তার দাবি তিনি সহ তার ঘনিষ্ঠ দুই সহোচর এম, আজহারুল হক আরজু ও শাখাওয়াত হোসেন কে যে কোন সময় হত্যা করতে পারে বলে তিনি অভিযোগ করেন।
জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, জাতীয় শোক দিবস কে কেন্দ্র করে ফেনী পৌর শহর ছাডাও বিভিন্ন এলাকায় কাঙ্গালি ভোজের আয়োজন করা হয়েছে। এ সব স্থানে যাতে করে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সে ক্ষেত্রে পুলিশ কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করেছে। ফেনী পৌর শহরে ২ শত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ৭ টি মোবাইল টিম ও ১২ টি পকেট ডিউটি টিম নিয়োজিত রয়েছে। শহরের মুক্তিযুদ্ব স্মৃতিস্তম্ভ সংলগ্ন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি ও মাষ্টারপাডায় ৫ টি স্পেশাল মোবাইল টিম সহ ৬২ জন পুলিশ নিয়োজিত রয়েছে। পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা মাঠে রয়েছে।
ফেনীস্থ র‍্যাব-৭ ক্যাম্পের ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী অধিনায়ক মোঃ নুরুজ্জামান জানান, শোক দিবস পালন কে কেন্দ্র করে যাতে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সে জন্য শহরজুডে র‍্যাবের ৪ টি টহল দল মাঠে রয়েছে।