আজ

  • মঙ্গলবার
  • ১লা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ফেনীতে এক ব্যবসায়ীকে জিম্মি করে জোরর্পূবক জমি লিখে নেয়াসহ মালামাল লুটের অভিযোগ

আপডেট : আগস্ট, ২৩, ২০২০, ৪:২৭ অপরাহ্ণ

অফিস ডেস্ক>>>

ফেনীতে এক ব্যবসায়ী সহ তার পরিবারকে অস্ত্রের মুখে জিম্মীর পর তাকে অপহরণ করে জোরপূর্বক কোটি টাকার জমি লিখে নেয়া সহ ঘরের মুল্যবান জিনিসপত্র তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগে ফেনীর সিনিয়ির জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও আমলী আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।রোববার দুপুরে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ধ্রুব জ্যোতী পালের আদালতে এ মামলা দায়ের করেন মামলার বাদী ও সিএন্ডএফ ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম। পরে আদালত মামলাটি সিআইডিকে তদন্তের জন্য নির্দেশ প্রদান করে।

মামলার বিবরণে ব্যারিষ্টার মহিউদ্দিন হানিফ জানান, বাদী নজরুল ইসলাম একসময় অপর সিএন্ডএফ ব্যবসায়ী আরিফিন আজাদ বাদলের ফিল্ম ফেয়ার লিমিটেড নামে একটি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ছিলেন। একর্পযায় নজরুল নিজের নামে একটি সিএন্ডএফ লাইসেন্স করে ব্যবসা শুরু করেন এবং শ্রম ঘামে বেশ সফলতা অর্জন করতে থাকেন।এতে পূর্বের কর্মরত থাকা প্রতিষ্ঠানের মালিক আরিফিন আজাদ বাদল ঈর্ষান্বিত হয়ে গত এক বছর ধরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ একাধিক প্রভাবশালী মহল ব্যবসায়ী নজরুল ইসলামকে ব্যবসা করতে হলে মাসিক চাঁদা দিতে চাপ দেয়।একপর্যায় নজরুল দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে গত ১৭জুন প্রকাশ্য দিবালোকে আরিফিন আজাদ বাদল,গিয়াস উদ্দিন সুমন, দিল জাহান ও জনপ্রতিনিধি জমিরউদ্দিন সহ অজ্ঞাত ৮ থেকে ১০ দশ জনের সংজ্ঞবদ্ধ দল ব্যবসায়ী নজরুলের ঘরে প্রবেশ করে তার মা সহ পরিবারের সকলকে অস্ত্রের মুখে জিম্মী করে। এসময় তারা ঘরে থাকা ব্যবসায়ীক ও সম্পত্তির দলিল,গুরুত্বপূর্ণ কাগজ প্রত্র,স্বর্ণালংকার,টিভি,ফ্রিজসহ মূল্যবান জিনিসপত্র জোর পূর্বক ট্রাকে তুলে নিয়ে যায় এবং অপর একটি অংশ ব্যবসায়ী নজরুলকে সেদিনই একটি কালো গ্লাসের মাইক্রোবাস যোগে অপহরণ করে ঢাকা কেরানীগঞ্জ নিয়ে যায়।সেখানে নিয়ে ব্যবসায়ী নজরুলের নিজ মালিকীয় বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার সাড়ে ৬ কাঠার জমিটি লিখে দিতে চাপ দেয়।একপর্যায় তারা ১৮ জুন কেরানিগঞ্জ সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের আশেপাশের একটি ভবনে চোখ বেধেঁ আটকে রাখে ব্যবসায়ী নজরুলকে।পরে নজরুল জমি লিখে দিতে রাজি হলে ১৮জুন দুপুরে সাবরেজিষ্ট্রি অফিসে নিয়ে যাওয়া হয় এবং সম্পত্তি লিখে দিতে বাধ্য হন।পরে অপহরণকারীরা হুমকি ধামকি দেয় যে এ বিষয় নিয়ে কারো সাথে মুখ খুললে অথবা প্রকাশ করিলে সে সহ পরিবারের সকলকে প্রাণে মেরে ফেলা হবে।

তবে মামলা দায়েরে দেরির ব্যপারে ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম জানান, বিবাদীরা প্রভাবশালী হওয়ার পাশাপাশি প্রতিনিয়ত তাদের হুমকি ধামকি দেয়ার কারনে মামলা করতে বিলম্ব হয়েছে।