আজ

  • মঙ্গলবার
  • ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ফেনীর রাজনীতি,সামাজিক ও সামগ্রিক ক্ষেত্রে জননেতা নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপি একটি ইতিহাস।

আপডেট : সেপ্টেম্বর, ৯, ২০২০, ৮:০৩ অপরাহ্ণ

অফিস ডেস্ক>>>>

ফেনীর অতীত ইতিাসের দিকে তাকালে রক্ত, অস্ত্র, মারামারি আর খুনোখুনির অহরহ দৃশ্য ভেসে উঠে। কিন্তু বর্তমান প্রেক্ষাপট যদি চিন্তা করেন, তাহলে অতীত ও বর্তমানের ফারাক খুব সহজেই বোঝা যায়। এ সময়ের সন্ত্রাসের জনপদ হিসেবে খ্যাত ফেনীর কালিমা মোচন করতে যিনি সবার অগ্রভাগে থেকেছেন, তিনি একজনই নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপি। তার দক্ষ ও সুদূরপ্রসারী নেতৃত্বে এ জনপদে শান্তির ধারা বইছে দিবানিশি। তাই আজ ফেনীর মানুষ শংকাহীনভাবে জীবন যাপন করছে।

শুরুটা ছিল ভিন্নরকম। ২০০১ সাল পরবর্তী নেতৃত্বশূন্য, অগোছালো জেলা আওয়ামীলীগের হাল ধরেন নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপি। তিল তিল করে নিজের শ্রম, মেধা ও দক্ষ নেতৃত্বের দৃপ্তচারণে ফেনী জেলা আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত ও শক্তিশালী সংগঠন হিসেবে দাঁড় করিয়েছেন। দলের অভ্যন্তরীণ বিশৃঙ্খলা, ভেদাভেদ সব ঘুচিয়ে বাংলাদেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ সাংগঠনিক জেলা হিসেবে তিনি রূপান্তরিত করেছেন জেলা আওয়ামী লীগকে।
নিজাম উদ্দিন হাজারী শুধু দলকে নিয়েই ভাবেন নি। ভেবেছেন এ জনপদের আপামর মানুষের কথাও। তিনিই ফেনীতে বইয়ে দিয়েছেন উন্নয়নের অবিরত ধারা। অবকাঠামো নির্মাণ, রাস্তাঘাট উন্নয়ন, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানসহ জেলা প্রতিটি ক্ষেত্রেই সেই ছোঁয়া লেগেছে।
মহিপালে বাংলাদেশের প্রথম সিক্স লেনের ফ্লাইওভার, আধুনিক সদর হাসপাতালকে ২৫০ শয্যায় উন্নতকরণ, সিসিইউ, আইসিইউ, কিডনী ডায়ালাইসিস ও ডেন্টাল ইউনিট স্থাপন, জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে রাস্তাঘাট, কালভার্ট, ব্রীজ, মসজিদ, মাদ্রাসা, স্কুল কলেজ, মন্দির, শ্মশান উন্নয়নসহ এরকম অংসখ্য উদহরণ রয়েছে।
ফেনী কলেজে মাস্টার্স কোর্স, অনার্স কোর্স, আলিয়া মাদ্রাসায় মাস্টার্স কোর্স অনার্স কোর্স চালু, শহরের ১৮টি ওয়ার্ডে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোতে ৭০টি ভবন, ফেনী কলেজে বড় বড় ভবন সহ জেলার প্রতিটি স্কুলে অসংখ্য ভবন নির্মাণ করতে ভূমিকা রেখেছেন তিনি।
করোনাকালীন দুঃসময়ে ফেনীবাসীর পাশে থেকে যে ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপি তা কখনো ভোলার নয়।
সংগঠনের শীর্ষ থেকে তৃণমূল নেতাকর্মীদের প্রতি তার আন্তরিকতা, ভালোবাসা অবারিত। তার ব্যক্তিসত্ত্বার কাছে সবাই সমান। তিনি সকলের আপনজন। তার কাছে কোন ভেদাভেদ নেই।
সাধারণ মানুষের জন্য তার দরজা ২৪ ঘন্টা উম্মুক্ত। তার কাছে এসে কেউ কখনো বিমুখ হয়ে ফেরেন নি। তাদের সকল আশা, প্রত্যাশা ও সমস্যা সমাধানে নিজেকে বিলিয়ে দিতে কখনো কার্পন্যতা নেই তার। তার সেই ভালোবাসার প্রতিদান হিসেবে তিনি আজ ফেনীর গণমানুষের নেতা হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন।
ফেনীর রাজনৈতিক, সামাজিক ও সামগ্রিক ক্ষেত্রে নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপি নিজেই একটি ইতিহাস।